রমজানের বাজার স্থিতিশীল রাখতে ভারতের কাছে চিনি-পেঁয়াজের জন্য বিশেষ সুবিধা চেয়েছে বাংলাদেশ

আরো পড়ুন

রমজান মাসকে সামনে রেখে বাজারে পণ্যের সরবরাহ নিশ্চিত এবং দাম স্থিতিশীল রাখতে ভারতের কাছে দেড় লাখ টন চিনি ও পেঁয়াজ আমদানির জন্য বিশেষ সুবিধা চেয়েছে বাংলাদেশ।

দিল্লি সফর শেষে সোমবার (১২ ফেব্রুয়ারি) পররাষ্ট্রমন্ত্রী হাছান মাহমুদ এক সংবাদ সম্মেলনে জানান, ভারতের বাণিজ্য ও শিল্পমন্ত্রী পীযূষ গয়ালের সাথে বৈঠকে তিনি এ প্রস্তাব করেন।

মন্ত্রী বলেন, “আমরা অনেক ভোগ্যপণ্যের জন্য ভারতের উপর নির্ভরশীল। বিশেষ করে, পেঁয়াজ, চিনি, ডাল এবং মসলা জাতীয় কিছু পণ্য। আমরা অনেক কিছুর জন্য ভারতের উপর নির্ভরশীল।”

তিনি বলেন, “আমি তাকে বলেছি, এসব ভোগ্য পণ্যে যেন বিশেষ কোটা নির্ধারণ করে দেওয়া হয়। যাতে আমরা তাদের থেকে এসব সঠিক মূল্যে এবং আমাদের প্রয়োজনে আমদানি করতে পারি। কমপক্ষে এটুকু সুবিধা যেন তাদের থেকে নিতে পারি।”

হাছান মাহমুদ আরও বলেন, রমজানের আগে ভারত ইতোমধ্যে বাংলাদেশকে ২০ হাজার মেট্রিক টন পেঁয়াজ এবং ১০ হাজার মেট্রিক টন চিনি রপ্তানির প্রতিশ্রুতি দিয়েছে। তিনি তা বর্ধিত করে ৫০ হাজার মেট্রিক টন পেঁয়াজ এবং ১ লাখ মেট্রিক টন চিনিতে উন্নীত করার অনুরোধ করেছেন।

মন্ত্রী বলেন, ভারতের বাণিজ্যমন্ত্রী তার প্রস্তাবটি ইতিবাচকভাবে গ্রহণ করেছেন।

এছাড়াও, বাংলাদেশ ভারতের কাছে চাল, গম, ডাল ও আদা-রসুন আমদানির জন্যও কোটা চেয়েছে।

মন্ত্রী বলেন, “আমরা আশা করি ভারত আমাদের অনুরোধের প্রতি ইতিবাচক সাড়া দেবে।”

জাগো/আরএইচএম

আরো পড়ুন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

সর্বশেষ