যারা শাহীন চাকলাদার বিরোধী তাদের ভোটের মাঠে যাওয়ার দরকার নেই  

আরো পড়ুন

নিজস্ব প্রতিবেদক 
দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনে যশোর-৬ (কেশবপুর) আসনে নৌকায় ভোট না দিলে কেন্দ্রে না যাওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন অলোক চক্রবর্ত্তী নামে এক যুবলীগ নেতা। গত ১৯ ডিসেম্বর উপজেলার গৌরীঘোনা ইউনিয়নের সন্ন্যাসগাছা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে নির্বাচনী পথসভায় তিনি এ বক্তব্য দেন। ওই পথসভার ২মিনিট পাঁচ সেকেন্ডের যুবলীগনেতা অলোকের ছবি সম্বলিত একটি ভিডিও ফেসবুকে বুধবার রাতে ছড়িয়ে পড়েছে। এ  ঘটনার পর থেকে এলাকায় ব্যাপক আলোচনা-সমালোচনা চলছে। অনেকেই সুষ্ঠু ভোট হওয়া নিয়ে শঙ্কা প্রকাশ করেছেন। সাধারণ ভোটাররা বলছেন, ইউনিয়নে নির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ হওয়ার নিশ্চয়তা পেলে তাঁরা ভোটকেন্দ্রে যাবেন, নয়তো যাবেন না। অলোক চক্রবর্ত্তী গৌরীঘোনা ইউনিয়ন যুবলীগের আহ্বায়ক। এই আসনের নৌকার প্রার্থী বর্তমান সংসদ সদস্য ও জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহীন চাকলাদার।
স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, গত ১৯ ডিসেম্বর সন্ন্যাসগাছা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে নির্বাচনী পথসভা অনুষ্ঠিত। নৌকা প্রতীকের প্রার্থীকে বিজয়ী করতে এই পথসভায় প্রধান অতিথি ছিলেন স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদে চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এস এম হাবিবুর রহমান। এছাড়া ইউনিয়ন বিভিন্ন স্তরের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। নেতাকর্মীরা জানিয়েছেন, অনুষ্ঠানে শুরু হওয়ার আগে যুবলীগনেতা অলোক সবাইকে অনুষ্ঠানের ভিডিও করতে নিষেধ করেছিলেন।
ছড়িয়ে পড়া ভিডিওতে অলোক চক্রবত্তীকে বলতে শোনা যায়, ‘বিএনপির ভোট দিতে আসার দরকার নেই। তার পরেও যদি কেউ আসে তাহলে সেটা পরে বুঝা যাবে। যারা আওয়ামী লীগে বিশ্বাস করে, উন্নয়নে বিশ্বাস করে, যারা নৌকায় বিশ্বাস করে। যারা শাহীন চাকলাদারকে নেতা হিসাবে মানে আর যারা এই ইউনিয়নে হাবিব ভাইকে (ইউপি চেয়ারম্যান) নেতা হিসাবে মানে তারাই শুধু ভোটের মাঠে যাবে। আমি যেতে নিষেধ করবো না। যারা শাহীন চাকলাদার বিরোধী তাদের ভোটের মাঠে যাওয়ার দরকার নেই। যারা নৌকার পক্ষে ভোট দিবেন, তারাই ভোটের মাঠে যাবেন। তা না হলে যাওয়ার দরকার নেই। কথা কিন্তু ক্লিয়ার।’
নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্য অলোক বলেন, ‘অনেকেই আমাদের বক্তব্য ভিডিও করছেন। কেউ ভিডিও করবেন না। আমাদের বিরুদ্ধে চক্রান্ত শুরু হয়েছে। হাবিব ভাইয়ের বিরুদ্ধে না, শেখ হাসিনা বিরুদ্ধে চক্রান্ত শুরু হয়েছে। দেশে বিদেশী এর সঙ্গে এলাকা ভিত্তিক চক্রান্ত শুরু হয়েছে। আমাদের বক্তব্য রেকর্ড করে নির্বাচন কমিশনে পাঠাতে পারে। ওসব করে কিচ্ছু হবে না। এই অঞ্চলের নেতাকর্মীদের বলি স্বতন্ত্রদের আশ্রয় দিচ্ছেন, পক্ষ নিচ্ছেন। তাদের নাম বলবো না। এই গৌরিঘোনা ইউনিয়নে আমরা আওয়ামী লীগ করি। ফলে ঐ সমস্ত দালালদের সুযোগ দিবো না। ওদের (স্বতন্ত্র) পুলকে যারা ভোটের মাঠে আসবে, তাদের কঁচা(স্থানীয় গাছ) দিয়ে কি করবো তা কিন্তু বলতে পারবো না। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে ভিডিও সম্পর্কে জানতে চাইলে যুবলীগ নেতা অলোক চক্রবর্ত্তী  বলেন, ভিডিওটি আমি দেখেছি। ভিডিওটি এডিট করা। কেশবপুরে যে পরিমাণ উন্নয়ন হয়েছে, তাতে কাউকে নিষেধ বা জোর করা লাগবে না। সাধারণ ভোটারা এমনিতেই ভোট দিতে আসবে। আর এই বিষয়ে সহকারী রির্টানিং অফিসার ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার তুহিন হোসেন বলেন, ঘটনা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। তবে কেশবপুরে  নির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ করতে সব ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
প্রসঙ্গত, যশোর-৬ (কেশবপুর) আসনে আওয়ামী লীগ মনোনীত বর্তমান সংসদ সদস্য শাহীন চাকলাদারকে চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিয়েছেন আওয়ামী লীগের স্বতন্ত্র প্রার্থী ও সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান  এইচএম আমির হোসেন ও জিলা পরিষদের সাবেক সদস্য আজিজুল ইসলাম, জাতীয় পার্টির জিএম হাসান।
জেবি/জেএইচ 

আরো পড়ুন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

সর্বশেষ