যশোর-৫ ভোট কেন্দ্র দখলের শঙ্কা স্বতন্ত্র প্রার্থীর

আরো পড়ুন

নিজস্ব প্রতিবেদক 
যশোর-৫ আসনে আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীকের প্রার্থী ও তার কর্মীবাহিনী বোমার বিস্ফোরণ ঘটিয়ে ভোটকেন্দ্র দখলে নিতে পারেন বলে শঙ্কা প্রকাশ করেছেন আসনটির স্বতন্ত্র প্রার্থী ইয়াকুব আলী। শনিবার সন্ধ্যায় প্রেসক্লাব যশোরে সংবাদ সম্মেলন করে
তিনি এই শঙ্কার কথা জানিয়েছেন। এই আসনে আওয়ামী লীগের মনোনিত প্রার্থী টানা দুই বারের সংসদ সদস্য স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য। আর ঈগল প্রতীকের স্বতন্ত্র প্রার্থী ইয়াকুব আলী জেলা কৃষক লীগের সহ সভাপতি।

আসনটির ভোটারদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, এবারের দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে যশোরের ছয়টি আসনের মধ্যে সবচেয়ে বেশি উত্তেজনা ছড়িয়েছে যশোর-৫ (মনিরামপুর) আসনে। আসনটিতে আওয়ামী লীগের প্রার্থী স্বপন ভট্টাচার্য এবং দলের স্বতন্ত্র প্রার্থী বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ইয়াকুব আলীর অনুসারীদের মধ্যে হুমকি, সংঘর্ষ, নির্বাচনী ক্যাম্পে অগ্নিসংযোগ এবং একাধিক মামলার ঘটনা ঘটেছে। এসব ঘটনায় ভোটারদের ধারণা, ভোটের দিন ছড়াতে পারে নির্বাচনী সহিংসতা। সুষ্ঠু ভোট নিয়েও শঙ্কা প্রকাশ করেছেন তাঁরা। জেলার মধ্যে এই আসনে ১২৮টি ভোট কেন্দ্রের মধ্যে ৪৮টি কেন্দ্র ‘ঝুঁকিপূর্ণ’ বা অতিগুরুত্বপূর্ণ ভোটকেন্দ্র চিহ্নিত করেছে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী।

সংবাদ সম্মেলনে ইয়াকুব আলী বলেন, ‌‌মনিরামপুরবাসী ভোট প্রদানের জন্য আগ্রহ প্রকাশ করেছেন। তারা সুষ্ঠু পরিবেশ থাকলে ভোট দিতে কেন্দ্রে আসবেন। কিন্তু আমার প্রতিপক্ষ নৌকার প্রার্থী পরাজিত নিশ্চিত জেনে ভোটার উপস্থিতি বাঁধাগ্রস্থ করতে অপকৌশল নিয়েছে। যারমধ্যে রয়েছে তিনি শনিবার রাতে মনিরামপুর জুড়ে বোমার বিস্ফোরন ঘটাবেন। ভোটের দিন রোববারও ঘটাতে পারেন বলে শঙ্কা প্রকাশ করছি। যাতে ভোটাররা কেন্দ্রে আসতে না পারেন। কারণ হলো ভোটাররা ভোট দিতে আসলে নৌকার প্রার্থী পরাজিত হবেন। তার অত্যাচার, দখল আর চাঁদাবাজির জবাব দিতে প্রস্তুত রয়েছেন ভোটাররা। এটা তিনি বুঝতে পেরে ভোটার উপস্থিতি কমাতে অপকৌশল নিয়েছেন।

স্বতন্ত্র প্রার্থীর কর্মী সমর্থকদের প্রতিনিয়ত হুমকি ধামকি দিচ্ছে দাবি করে ইয়াকুব আলী বলেন, ‌ইতিমধ্যে নৌকার প্রার্থীর লোকজন আমার সমার্থকদের বাড়িতে গিয়ে হুমকি দিচ্ছে মাঠে না থাকার জন্য। ভোটারদের ভয়-ভীতি দেখানো হচ্ছে। উপজেলা সুন্দলপুর গ্রাম থেকে আমার একজন সক্রিয় কর্মীকে তুলে নিয়ে নানা হুমকির পর ছেড়ে দিয়েছে। আমি প্রশাসনকে বলেছি, মনিরামপুরে ৪৮টি কেন্দ্র ঝুঁকিপূর্ণ। সেখানে গোলযোগ সৃষ্টি করে নৌকার প্রার্থী কেন্দ্রের ভোট বন্ধ করার ষড়যন্ত্র করছেন। যেকারণে প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি।
এই বিষয়ে আওয়ামী লীগের প্রার্থী বর্তমান সংসদ সদস্য প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য্য বলেন, ‘নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করতে স্বতন্ত্র প্রার্থী এসব মিথ্যা অভিযোগ করছেন। মণিরামপুরে সুষ্ঠু ভোট গ্রহনের পরিবেশ রয়েছে। জনগণ থেকে এই প্রার্থী জনসমর্থন না পাওয়াতে এসব অভিযোগ তুলছেন।
প্রসঙ্গত, যশোর-৫ (মণিরামপুর) আসনে আওয়ামী লীগ মনোনীত বর্তমান সংসদ সদস্য প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য্য ও স্বতন্ত্র প্রার্থী ইয়াকুব আলী ছাড়াও প্রতিদ্বন্দ্বীতা করছেন তৃণমূল বিএনপির আবু নসর মোহাম্মদ মোস্তফা, ইসলামী ঐক্যজোটের হাফেজ মাওলানা নুরুল্লাহ আব্বাসী ও  জাতীয় পার্টির এমএ হালিম। এর মধ্যে ভোটের দুই দিন আগে নিজ দলের প্রতি ক্ষোভ ও নির্বাচনী পরিবেশ নাই দাবি করে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন তৃণমূল বিএনপির আবু নসর মোহাম্মদ মোস্তফা ও জাতীয় পার্টির এমএ হালিম। যদিও ভোটের দিন নির্বাচনী ব্যালটে এই দুই প্রার্থীর প্রতীক থাকছে।

জাগো/জেএইচ 

আরো পড়ুন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

সর্বশেষ