যশোরে আইনজীবীর বিরুদ্ধে শ্লীলতাহানির মামলা মহিলা আ’লীগ নেত্রীর 

আরো পড়ুন

যশোরে এক আইনজীবী সৈয়দ কবীর হোসেন জনির বিরুদ্ধে শ্লীলতাহানির মামলা করেছেন এক মহিলা আওয়ামী লীগ নেত্রী। বুধবার সকালে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-১ গোলাম কবিরের আদালতে এ মামলা করেন। বিচারক মামলাটি তদন্ত করে প্রতিবেদন দেয়ার জন্য পিবিআই-কে আদশ দিয়েছেন। বাদী পক্ষের আইনজীবী রুহিন বালুজ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

আসামি অ্যাডভোকেট সৈয়দ কবীর হোসেন জনি যশোর জেলা আইনজীবী সমিতির সদস্য ও অভয়নগর উপজেলা আওয়ামী লীগের প্রস্তাবিত কমিটির আইন বিষয়ক সম্পাদক।

মামলার বাদি জেলা মহিলা আওয়ামী লীগ নেত্রী ও সাবেক ইউপি সদস্য। বাদির অভিযোগ, দলীয় কর্মী হিসেবে অ্যাডভোকেট সৈয়দ কবীর হোসেন জনির সঙ্গে বাদির সুসম্পর্ক রয়েছে। জনি প্রায় বাদির বাড়িতে যেতেন। বাদির পারিবারিক জমি সংক্রান্ত ঝামেলা থাকায় আইনগত পরামর্শের জন্য জনিকে অনুরোধ করেন। এরপর জনি গত ১০ জুন সাড়ে ৮টার দিকে বাদির বাড়িতে যায় । এসময় বাড়িতে কেউ ছিল না। আলোচনার একপর্যায়ে জনি আকস্মিক বাদিকে জড়িয়ে ধরে গালে, বুকে চুমু দেয় এবং নিতম্ব স্পর্শ করে। এসময় বাদি তাকে ধাক্কা দিয়ে দূরে সরিয়ে দেয় এবং গালিগালাজ করলে জনি দ্রুত ঘর থেকে বের হয়ে মোটরসাইকেল যোগে চলে যায়।এ অবস্থায় ন্যায় বিচার পেতে আদালতের স্মরণাপন্ন হয়েছেন তিনি।

মামলার বিষয়ে অ্যাডভোকেট সৈয়দ কবীর হোসেন জনি বলেছেন, ‘মামলা হয়েছে শুনেছি। তবে ওই নারীকে আমি চিনি না। নারী কোর্টের পিপিকে লাঞ্ছিত করার ঘটনায় জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতির বিরুদ্ধে যে মামলা হয়েছে আমি তার পিটিশনকারী। রাজপথে আন্দোলনও করেছি। এজন্য একটি পক্ষ আমাকে হেয় প্রতিপন্ন করতে মামলা করেছে বলে মনে করছি।

জাগো/আর‌এইচ‌এম 

আরো পড়ুন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

সর্বশেষ