দুর্ঘটনা প্রতিরোধ যা ভাবছে রেলওয়ে

আরো পড়ুন

সাম্প্রতিক সময়ে রাজনৈতিক অস্থিতিশীলতায় একের পর এক ট্রেন দুর্ঘটনার শিকার হচ্ছে। দুর্ঘটনা প্রতিরোধে রেলের রাতের ট্রেনগুলোতে গতি কমিয়ে ৪০ কিলোমিটারে নিয়ে আসা, রেল পুলিশ ও রেলওয়ে নিরাপত্তা বাহিনীর টহল বাড়ানের মতো দৃশ্যমান কিছু পদক্ষেপ নিয়েছে রেলওয়ে। বিএনপির ২৮ অক্টোবরের সমাবেশের পরে হরতাল-অবরোধের ডাক দেওয়ার পরে থেকে সর্বশেষ গত ১৩ ডিসেম্বর পর্যন্ত আনুমানিক ৩০টি দুর্ঘটনার তথ্য জানিয়েছে রেলওয়ের একটি সূত্র।

এরমধ্যে গত ১৩ ডিসেম্বর গাজীপুরে রেলপথ কেটে ফেলার মামলায় গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের কাউন্সিলর ও বিএনপি নেতা হাসান আজমল ভূঁইয়ার পরিকল্পনায় গাজীপুরের নাশকতার ঘটনা ঘটেছে বলে দাবি করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় কাউন্সিলরসহ আরও ৬ ছন- জান্নাতুল ইসলাম (২৩), মেহেদী হাসান (২৫), জুলকার নাইন আশরাফি ওরফে হৃদয় (৩৫), শাহানুর আলম (৫৩), মো. সাইদুল ইসলাম (৩২) ও সোহেল রানা (৩৮) গ্রেফতার হয়েছেন। এ ঘটনার পরে শুধু আইনি পদক্ষেপ, নিরাপত্তা জোরদারই নয় এবার বাংলাদেশ রেলওয়ে প্রযুক্তিগত সমাধানের কথাও ভাবছে।

এ বিষয়ে প্রধান পরিকল্পনা কর্মকর্তা সলিমুল্লাহ বাহার বলেন, দুর্ঘটনা রোধে বাংলাদেশ রেলওয়ে চারটি পদক্ষেপ নিয়েছেন। এই চার পদক্ষেপ হচ্ছে- অটোমেটিক সিমুলেশন সিস্টেম, প্রধান শাখা ডাবল লাইন করা হবে, মনিটর করার জন্যে অনলাইন পদ্ধতি চালু করা হবে এবং চালকদের ট্রেন চালনায় আধুনিক প্রযুক্তিতে প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে।

অটোমেটিক সিমুলেশন সিস্টেমের মাধ্যমে কী পদক্ষেপ নেওয়া হবে এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ট্রেন লাইন কেটে ফেললে স্বয়ংক্রিয়ভাবে ট্রেন বন্ধ হয়ে যাবে। ফলে দুর্ঘটনা এড়ানো যাবে। একইসাথে এ ব্যবস্থায় অভ্যস্ত করতে চালকদেরও প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে। এদিকে পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ের মহাব্যবস্থাপক অসীম বলেন, আমরা প্রতি ৭ কিলোমিটারে ৪ জনকে নিযুক্ত করেছি রেলপথের নিরাপত্তায়। একইসঙ্গে রেল পুলিশ ও রেলওয়ের সমন্বয়ে যে টিম করেছি সেখানে ১০০ টি স্পর্শকাতর স্পট চিহ্নিত করেছি। সেগুলোতে নিরাপত্তা জোরদার করা হচ্ছে। এছাড়া রাত্রিকালীন কিছু কোচে যাত্রী হয় না এরকম ৪-৫ টি ট্রেন বন্ধ করে দিবো। প্রযুক্তিগত কোন সমাধানের বিষয়ে ভাবছেন কি না এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আপাতত আমার এমন কিছু জানা নেই।

নৌ, সড়ক ও রেলপথ রক্ষা জাতীয় কমিটি’র সাধারণ সম্পাদক ও পরিবহন বিশেষজ্ঞ আশীষ কুমার দে বলেন, দুর্ঘটনায় দায়ীদের উপযুক্ত শাস্তি না হওয়ায় রেলপথে দুর্ঘটনা এড়ানো যাচ্ছে। একইসাথে প্রয়োজন দুর্ঘটনা রোধে সঠিক ল ব্যবস্থাপনা। দুর্ঘটনা এড়াতে লোকবলের সঙ্কট এড়িয়ে টহল বাড়ানো প্রয়োজন বলে মনে করেন এই পরিবহন বিশেষজ্ঞ।

জেবি/জেএইচ

আরো পড়ুন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

সর্বশেষ