খুলনায় নারী ফুটবলারদের মারধরের প্রতিবাদে মানববন্ধন

আরো পড়ুন

খুলনার বটিয়াঘাটায় নারী ফুটবলারদের মারধরের প্রতিবাদ ও দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (৩ আগস্ট) বেলা সাড়ে ১১টায় খুলনা প্রেসক্লাবের সামনে বাংলাদেশ দলিত ও বঞ্চিত জনগোষ্ঠীর অধিকার আন্দোলন খুলনা জেলা শাখার উদ্যোগে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের খুলনা জেলা কমিটির সভাপতি সুব্রত কুমার মিস্ত্রি।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, ফুটবল খেলার জন্য সাদিয়া নাসরিন, মঙ্গলী বাগচীসহ চারজনকে মারধর করা হয়েছে। নারী জাতি যখন এগিয়ে যাচ্ছে, ঠিক তখন এক শ্রেণির মানুষ নারীদের অপমান-অপদস্থ করছে, মারধর করছে। এমনকি জামিন পেয়ে তিনজন আসামি অ্যাসিড নিক্ষেপের হুমকি দিচ্ছে। তারই প্রতিবাদে আজকের এই কর্মসূচি। হামলাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানাচ্ছি।

মানববন্ধনে প্রধান অতিথি হিসেব উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি বিভুতোশ রায়। মানববন্ধনে আরও উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় কমিটির প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক নিশিত রঞ্জন মিস্ত্রি, গীতা ফাউন্ডেশনের সভাপতি অ্যাডভোকেট প্রসেনজিৎ দত্ত, শিবপদ দাস, শান্তা মণ্ডল, পবিত্র মণ্ডল, বন্যা পাল, রনজিৎ বৈরাগী প্রমুখ।

মারধরের ঘটনায় আহত নারী ফুটবলার সাদিয়া নাসরিনের অভিযোগ, গত ২৭ জুলাই একাডেমিতে অনুশীলন করার সময় নূপুর খাতুন নামের প্রতিবেশী এক মেয়ে তার ছবি তোলেন। পরে বাড়িতে গিয়ে তার মা-বাবাকে সেই ছবি দেখিয়ে আজেবাজে মন্তব্য করেন। সাদিয়া ২৯ জুলাই বিষয়টি সম্পর্কে জিজ্ঞেস করলে নূপুর অকথ্য ভাষায় তাকে গালিগালাজ করেন। প্রতিবাদ করলে তাকে (সাদিয়া নাসরিন) এলোপাতাড়িভাবে কিল, চড়, ঘুষি মেরে মুখ ও বিভিন্ন স্থানে জখম করা হয়।

সাদিয়া বলেন, বাড়িতে গিয়ে আমি বাবা-মা, কোচ ও অন্য খেলোয়াড়দের ঘটনাটি জানাই। তারা আমাকে নিয়ে সন্ধ্যার দিকে নূপুর খাতুনের বাড়িতে যান। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে নূপুর, তার বাবা নূর আলম খাঁ, ভাই সালাউদ্দিন ও নূপুরের মা রঞ্জি বেগম আমাদের ওপর আবারও হামলা চালায়। এতে মঙ্গলী, হাজেরা ও জুঁই আহত হয়। তারা লোহার রড দিয়ে আমাদের ওপর হামলা করে এবং চায়নিজ কুড়াল নিয়ে এসে হত্যার হুমকি দেয়।

আরো পড়ুন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

সর্বশেষ