ইসরায়েলের পক্ষে গুপ্তচরবৃত্তির অভিযোগে তুরস্কে আটক কয়েক ডজন

আরো পড়ুন

ইসরায়েলের পক্ষে গুপ্তচরবৃত্তির অভিযোগে তুরস্কে অন্তত ৩৩ জনকে আটক করেছে তুরস্কের কর্তৃপক্ষ। ইসরায়েলের গোয়েন্দা সংস্থার সঙ্গে সম্পৃক্ততার সন্দেহে আরও ১৩ জনকে খোঁজ করছে তুরস্ক।

মঙ্গলবার (২ জানুয়ারি) আনাদোলু নিউজ এজেন্সির এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

সন্দেহভাজনদের ইস্তাম্বুল ও অন্যান্য সাতটি প্রদেশে অভিযান চালিয়ে আটক করা হয়। তুরস্কে বসবাসকারী বিদেশি নাগরিকদের ওপর হামলা ও অপহরণ পরিকল্পনার অভিযোগ রয়েছে তাদের বিরুদ্ধে।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে তুরস্কের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আলি ইয়ারলিকায়া বলেছেন, আমরা কখনই আমাদের দেশের জাতীয় ঐক্য ও সংহতির বিরুদ্ধে গুপ্তচরবৃত্তিমূলক কর্মকাণ্ড পরিচালনা করতে দেবো না।

ঘটনার প্রেক্ষাপট

গত মে মাসে ইসরায়েল-ফিলিস্তিন সংঘাতের সময় ইসরায়েল গাজায় হামলা চালায়। এই হামলায় শত শত ফিলিস্তিনি নিহত হয়। এ ঘটনায় তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোয়ান ইসরায়েলের বিরুদ্ধে তীব্র সমালোচনা করেন। তিনি বলেন, ইসরায়েল ফিলিস্তিনিদের বিরুদ্ধে গণহত্যা চালিয়ে যাচ্ছে।

ইসরায়েলের এ হামলার পর তুরস্কের সঙ্গে ইসরায়েলের সম্পর্ক আরও খারাপ হয়ে যায়। ইসরায়েল-ফিলিস্তিন সংঘাতে তুরস্ক হামাসের পক্ষে অবস্থান নেয়।

গুপ্তচরবৃত্তির অভিযোগ

তুরস্কের কর্তৃপক্ষের অভিযোগ, আটক ব্যক্তিরা ইসরায়েলের গোয়েন্দা সংস্থা মোসাদের হয়ে তুরস্কে গোয়েন্দা তৎপরতা চালাচ্ছিল। তারা তুরস্কে বসবাসকারী ফিলিস্তিনি ও অন্যান্য বিদেশি নাগরিকদের সম্পর্কে তথ্য সংগ্রহ করছিল। এছাড়াও, তারা তুরস্কের সেনাবাহিনী ও গোয়েন্দা সংস্থা সম্পর্কেও তথ্য সংগ্রহ করছিল বলে অভিযোগ রয়েছে।

তুরস্কের প্রতিক্রিয়া

তুরস্কের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আলি ইয়ারলিকায়া বলেন, আটক ব্যক্তিরা তুরস্কের জাতীয় নিরাপত্তার জন্য হুমকি ছিল। তারা তুরস্কের ঐক্য ও সংহতি বিনষ্ট করার চেষ্টা করছিল।

তিনি বলেন, আমরা কখনই আমাদের দেশের বিরুদ্ধে গুপ্তচরবৃত্তিমূলক কর্মকাণ্ডকে বরদাশত করব না।

জাগো/এসআই

আরো পড়ুন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

সর্বশেষ