আইএমএফের ঋণের দ্বিতীয় কিস্তি রিজার্ভে

আরো পড়ুন

আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিলের (আইএমএফ) ঋণের দ্বিতীয় কিস্তি রিজার্ভে যোগ হওয়ার ফলে বাংলাদেশের বৈদেশিক মুদ্রার মজুত বা রিজার্ভের পরিমাণ আরও বৃদ্ধি পাবে। রিজার্ভের পরিমাণ বৃদ্ধি পাওয়ায় দেশের অর্থনীতির স্থিতিশীলতা বৃদ্ধি পাবে।

আইএমএফের ঋণের দ্বিতীয় কিস্তির অর্থ ছাড়ের প্রস্তাব অনুমোদন পাওয়ার পর পরই ৬৮ কোটি ১০ লাখ ডলার দেশের বৈদেশিক মুদ্রার মজুত বা রিজার্ভে যোগ হবে শুক্রবার। বর্তমানে বাংলাদেশের বৈদেশিক মুদ্রার মজুত ৪৭.৬ বিলিয়ন ডলারের বেশি। ঋণের দ্বিতীয় কিস্তির অর্থ ছাড়ের ফলে এই পরিমাণ আরও বৃদ্ধি পাবে।

রিজার্ভের পরিমাণ বৃদ্ধি পাওয়ার ফলে বাংলাদেশের অর্থনীতির স্থিতিশীলতা বৃদ্ধি পাবে। কারণ, রিজার্ভের অর্থ দিয়ে দেশের আমদানি খরচ মেটানো হয়। রিজার্ভের পরিমাণ বেশি থাকলে আমদানি খরচ মেটাতে সমস্যা হয় না। এতে দেশের অর্থনীতির স্থিতিশীলতা বৃদ্ধি পায়।

এছাড়াও, রিজার্ভের অর্থ দিয়ে দেশের বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্প বাস্তবায়ন করা হয়। রিজার্ভের পরিমাণ বেশি থাকলে এসব প্রকল্প বাস্তবায়নে সমস্যা হয় না। এতে দেশের অর্থনীতির প্রবৃদ্ধি বৃদ্ধি পায়।

জাগো/এসআই

আরো পড়ুন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

সর্বশেষ