অপরিকল্পিত উন্নয়নের নদ-নদী হত্যা, প্রতিবাদে ডিসি অফিসে অবস্থান কর্মসূচি

আরো পড়ুন

নিজস্ব প্রতিবেদক 

অপরিকল্পিত উন্নয়নের নামে নদ-নদী হত্যার প্রতিবাদে যশোরে অবস্থান কর্মসূচি ও প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করা হয়েছে। মঙ্গলবার বেলা ১২টার দিকে ভৈরব নদ সংস্কার আন্দোলন, ভবদহ পানি নিষ্কাশন সংগ্রাম কমিটি, কপোতাক্ষ বাঁচাও আন্দোলন, মুক্তেশ^রী বাঁচাও আন্দোলন ও চিত্রা বাঁচাও আন্দোলন কমিটির পক্ষ থেকে জেলা প্রশাসকের কার্যালয় চত্বরে এই কর্মসূচি পালন করা হয়। অবস্থান কর্মসূচি শেষে জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি পাঠানো হয়।

জানা যায়, হাইকোর্ট নির্মাণের কাজ স্থাগিতাদেশ দিলেও যশোরে পাঁচ নদীতে আটটি সেতুর নির্মাণ কাজ চলমান রয়েছে । সেতু বাস্তবায়ন কর্তৃপক্ষ এলজিইডি যশোর স্থাগিতাদেশ উপেক্ষা করে এই সেতু নির্মাণ করছে। উন্নয়নের নামে ভৈরব নদের ওপর ছাতিয়ানতলা, দাইতলা ও রাজারহাট সেতু, মণিরামপুরে মুক্তেশ্বরী ও শ্রী নদীতে দুটি, অভয়নগরের টেকা নদীতে একটি এবং শার্শার বেতনা নদীতে দুটি সেতু নির্মাণ কওে নদ নদী হত্যা করা হচ্ছে। উচ্চ আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে সেতু নির্মাণ চলছে।

এই সাথে ভৈরব, কপোতাক্ষ নদ খননের নামে লুটপাট করা হয়েছে। বিভিন্ন দাবিতে মঙ্গলবার যশোর জেলা প্রশাসকোর কার্যালয় চত্বওে অবস্থান কর্মসূচি পালন করেছে নদী বাঁচাও আন্দোলন কমিটি। দাবিগুলো, উজানে মাথাভাঙ্গা-ভৈরব নদী সংযোগ দ্রæত বাস্তবায়ন করতে হবে। হাইকোর্টের জারিকৃত রুল অমান্য করে ভৈরবের উপর ব্রীজ নির্মাণ কাজ বন্ধ করতে হবে। কপোতাক্ষ, চিত্রা, বেতনা, মুক্তেশ্বরী, হরিহরসহ নদীর উপর অপরিকল্পিত সংকীর্ণ সেতু অপসারণ ও নির্মাণ বন্ধ করতে হবে। ভবদহ সমস্যার স্থায়ী সমাধানের লক্ষ্যে বিল কপালিয়াসহ বিলে বিলে টিআরএম চালু করতে হবে। ভৈরব, কপোতাক্ষ সংস্কারে দুর্নীতি-অনিয়মের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।

অবস্থান কর্মসূচি শেষে জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি দেয়া হয়। স্মারকলিপি গ্রহণ করেন জেলা প্রশাসক আবরাউল হাছান মজুমদার। এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন  ভৈরব নদ সংস্কার আন্দোলের প্রধান উপদেষ্টা ইকবাল কবির জাহিদ, সাংবাদিক বীরমুক্তিযোদ্ধ রুকুন-উদ-দৌল্লা, মোবাশ্বার হোসেন বাবু, জিল্লুর রহমান ভিটু, তসলিম উর রহমান, অ্যাড. আবুল হোসেন, অ্যাড. মাহমুদ হাসান বুলু, হাচিনুর রহমান, অ্যাড. আমিনুর রহমান হিরু, আব্দুর রহিম, অনিল বিশ্বাস, মিজানুর রহমান, আবু সাঈদ নাসির আহমেদ সেফাড প্রমুখ।

ভৈরব নদ সংস্কার আন্দোলের প্রধান উপদেষ্টা ইকবাল কবির জাহিদ বলেন, আগামি এক সপ্তাহের মধ্যে নদ-নদীতে নির্মানাধীন অপরিকল্পিত সেতু নির্মাণ বন্ধ করতে হবে। নইলে ক সপ্তাহ পরে এলজিইডি অফিস ঘেরাও করা হবে। আর এক মাসের ভিতরে দর্শনা থেকে পাইকগাছা- মোংলা, নড়াইল পর্যন্ত নদ নদী অববাহিকায় আন্দোলনের প্রস্তুতি চলবে।
দাবি না মানলে রোজার পর আরও বৃহত্তর কর্মসূচি পালন করা হবে বলে ঘোষণা দেয়া হয়।

জাগো/জেএইচ 

আরো পড়ুন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

সর্বশেষ